সোমবার   ১৬ ডিসেম্বর ২০১৯

ব্রেকিং:
সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়গুলোর বার্ষিক ছুটি ৭৫ দিন আগামী মার্চে ঢাকা উত্তর সিটির ভোটের ইঙ্গিত সিইসির জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় পরিদর্শনে প্রধানমন্ত্রী আস্থা ভোটে টিকে গেলেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে রাষ্ট্রপতির সঙ্গে নেপালের বিদায়ী রাষ্ট্রদূতের সাক্ষাৎ খালেদার অনুপস্থিতিতেই কারাগারে বিচার চলবে রব ও মান্নার বিয়ে যুক্তফ্রন্টে, পরকীয়া ঐক্যফ্রন্টে: মাহী এটা জোট নয়, ঘোট : তথ্যমন্ত্রী যুক্তরাষ্ট্রে রাজনৈতিক আশ্রয় পেলেন সিনহা আবারও সরকার গঠনে নৌকায় ভোট দেয়ার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর পদ্মা সেতু প্রকল্পের নামফলক উন্মোচন করলেন প্রধানমন্ত্রী
৪৭৩

‘দরিদ্র ও মেধাবী দুজন ছাত্র/ছাত্রীকে পড়াতে চাই’

ডেস্ক রিপোর্ট

প্রকাশিত: ২৯ জানুয়ারি ২০১৯  

রাজধানীর নিউ মার্কেট সংলগ্ন ঢাকা কলেজের আশপাশের দেয়ালে সবসময় নানা ধরনের পোস্টার লাগানো থাকে। ‘বাসা ভাড়া’, ‘রুম ভাড়া’, ‘সিট খালি’, ‘পড়াতে চাই’- এমন বাহারি পোস্টারে ছেয়ে থাকে দেয়ালগুলো। রাজধানীজুড়ে এমন পোস্টার প্রায়শ সবার চোখে পড়ে।

কিন্তু ঢাকা কলেজের আশপাশে সাঁটানো ‘পড়াতে চাই’ পোস্টার দেখে যে কেউ একটু হলেও যেন থমকে যান। পোস্টারটি দ্বিতীয়বার এমনকি তৃতীয়বারও কেউ কেউ পড়ে দেখেন। পোস্টারটি যিনি দেয়ালে লাগিয়েছেন তার প্রতি কেন জানি আলাদা একটা শ্রদ্ধাবোধ ও ভালোবাসা এমনিতেই চলে আসে।

কারণ সেই পোস্টারের নিচে লেখা, ‘দরিদ্র ও মেধাবী দুজন ছাত্র/ছাত্রীকে পড়াতে চাই’। (২য়-৭ম শ্রেণী; সকল বিষয়)। একটু বড় করেই লেখা আছে ‘বিনা পারিশ্রমিকে’। যোগাযোগ : আবীর হাসান আকাশ। বিএসসি (অনার্স), ঢাকা কলেজ। এরপর যোগাযোগের জন্য দেয়া আছে ফোন নম্বর।

পোস্টারটি সবাইকে আকৃষ্ট করেছে। ‘বিনা পারিশ্রমিকে’- এ শব্দ দুটিই আবীর হাসান আকাশের পোস্টারকে অন্যসব পোস্টার থেকে আলাদা করে দিয়েছে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকেও ছড়িয়ে পড়েছে ছবিটি।

আগ্রহের জায়গা থেকে পোস্টারে দেয়া আবীর হাসান আকাশের মোবাইল নম্বরে যোগাযোগ করা হয়। নিজের এমন মহতী উদ্যোগের বিষয়ে কথা হয় তার সঙ্গে।

আবীর হোসেন আকাশ ঢাকা কলেজের মনোবিজ্ঞান বিভাগের তৃতীয় বর্ষের ছাত্র। ঢাকা কলেজের দক্ষিণ ছাত্রাবাসে (হোস্টেলে) থাকেন তিনি। বাড়ি গোপালগঞ্জ সদরে। ব্যবসায়ী বাবার সন্তান আবীর হোসেন আকাশ। বলেন, ‘ছোট বেলা থেকেই দরিদ্র, অসহায়, বঞ্চিত ও অভাবী মানুষের প্রতি কেন জানি আলাদা ভালোবাসা কাজ করে। তাদের জন্য কিছু করতে ইচ্ছে করে সবসময়। নিজের চলার টাকা জমিয়ে এই শীতে ১০টি কম্বল হতদরিদ্রদের মাঝে বিতরণ করেছি। এই তো কদিন আগেও এতিম এক মাদরাসা শিক্ষার্থীকে পাঞ্জাবি বানিয়ে দিয়েছি।’

‘আমার অনেক বন্ধু আছে যারা আর্থিক সমস্যার কারণে পরীক্ষার ফরম ফিলাপ করতে পারেন না। সেক্ষেত্রে নিজের বাড়ি থেকে টাকা এনে তাদের ফরম ফিলাপ করতে সহযোগিতা করি। সামান্য এ সহযোগিতায় তাদের মুখে যে হাসি দেখেছি, লাখ টাকা খরচ করেও এমন তৃপ্তি পাওয়া যায় না।’

কার কাছ থেকে এমন অনুপ্রেরণা পেয়েছেন- জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘এমন কাজে মা-ই আমাকে অনুপ্রাণিত করেন। ভালো কাজে সবসময় তিনি আমাকে সাপোর্ট দিয়ে আসছেন।’

‘পরিবারে সচ্ছলতা আছে, প্রাইভেট পড়িয়ে চলতে হবে- এমন পরিস্থিতি আমার নেই। সেজন্যই এমন উদ্যোগ নিয়েছি’- যোগ করেন তিনি।

আবীর হাসান আকাশ বলেন, ‘এই ঢাকা শহরে গরীব ও অসচ্ছল ফ্যামিলিতে অনেক শিক্ষার্থী আছে যারা খুবই মেধাবী। কিন্তু অর্থের অভাবে ভালো প্রতিষ্ঠানে বা প্রাইভেট পড়তে পারে না। সবাই তো প্রাইভেট পড়িয়ে অনেক টাকা নেয় কিন্তু আমার চলতে তো টাকার দরকার নাই, পরিবার থেকেই সেই টাকা পাই। এ কারণে সিদ্ধান্ত নেই, যেহেতু হাতে সময় আছে তাই দরিদ্র পরিবারের দুই মেধাবী শিক্ষার্থীকে বিনা পারিশ্রমিকে পড়াব। এমন আগ্রহ থেকে কয়েকটি পোস্টার ঢাকা কলেজের আশপাশে লাগায়।’

তিনি বলেন, পোস্টার লাগানোর পর অসংখ্য কল আসে। অনেকে তাদের ছেলে-মেয়েদের পড়ানোর জন্য অনুরোধ জানান। এর বাইরে অসংখ্য মানুষ এমন উদ্যোগ নেয়ায় আমাকে ধন্যবাদ, ভালোবাসা ও অনুপ্রেরণা দেন।

বিনা পারিশ্রমিকে পড়ানোর জন্য শিক্ষার্থী খুঁজে পেয়েছেন কিনা- জানতে চাইলে আবীর হাসান আকাশ বলেন, ইতোমধ্যে ১০/১২টি বাসায় আমি নিজে গিয়ে দেখে এসেছি। যাচাই-বাছাইয়ের পর দুই শিক্ষার্থীকে প্রাইভেট পড়ানোর জন্য বেছে নিয়েছি। একজন চা বিক্রেতা এবং অন্যজন আইসক্রিম বিক্রেতার ছেলে। তাদের প্রতি সপ্তাহে তিন-চারদিন করে পড়াতে যাব।

এদিকে আবীর হাসান আকাশের দেয়ালে লাগানো পোস্টারের ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ভাইরাল হয়। নানা প্রশংসায় ভাসেন আকাশ। জুয়েল সরকার নামে একজন তার টাইম লাইনে ছবিটি পোস্ট দিয়ে লেখেন, ‘জয় তারুণ্যের জয়, মানবতা বেঁচে থাকুক আপনার মতো শত কোটি তরুণের মাঝে। স্যালুট ব্রাদার।’

শতাব্দী জুবায়ের নামে আরেকজন লেখেন, ‘ব্যাপারটা দারুণ। এভাবেই পরিবর্তন আসুক মননে।’

আরও পড়ুন
শিক্ষা বিভাগের সর্বাধিক পঠিত
  • সেই ভূমিহীন ১১ পরিবার পেলো সরকারি জমি

  • বাংলা ইশারা ভাষা ইনস্টিটিউট প্রতিষ্ঠা করা হবে: সমাজকল্যাণমন্ত্রী

  • ভিক্ষুকমুক্ত স্বনির্ভর বাংলাদেশ গড়ে তোলা হবে: সমাজকল্যাণমন্ত্রী

  • দুর্নীতিবাজদের ধরে ধরে বিচার করতে হবে: সমাজকল্যাণমন্ত্রী 

  • জাতীয় পার্টি শক্তিশালী বিরোধী দল: রাঙ্গা

  • রিপোর্ট দেওয়ার নামে যাচ্ছেতাই মন্তব্য করলেই হবে না: দুদক

  • রাজধানীর মুগদা হাসপাতালে হামলার শিকার দুই সাংবাদিক

  • রংপুরের আইনজীবী বাবু সোনা হত্যায় স্ত্রী স্নিগ্ধার মৃত্যুদণ্ড

  • ফিরতে পারে ডাইনোসর!

  • শনি গ্রহে মেঘ ছাড়াই চরম বৃষ্টি

  • ব্রেক্সিট সমাধান যাচাই মঙ্গলবার

  • নিঃসঙ্গ হাঁসটির বিদায়

  • ভারত থেকে বিচ্ছিন্ন হচ্ছে আসাম!

  • হাড়কাঁপানো শীতে সাঁতার!

  • বিপিএল ছাড়ছেন ডি ভিলিয়ার্স

  • বিপর্যয় কাটাতে হিমশিম খাচ্ছে জাপান

  • এসএসসির প্রশ্নের মোড়ক খুলবে তিন কর্মকর্তার স্বাক্ষরে

  • ‘দরিদ্র ও মেধাবী দুজন ছাত্র/ছাত্রীকে পড়াতে চাই’

  • ‘মেঘনা নদীর চারপাশে নতুন নতুন চর জেগে ওঠছে’

  • শপথের সিদ্ধান্ত স্পষ্ট করলেন ঐক্যফ্রন্টের দু’জন প্রার্থী

  • শ্রম মন্ত্রণালয়কে ইপিজেড পরিদর্শনের ক্ষমতা দিয়ে আইন

  • ‘নিয়ন্ত্রণ কক্ষ চাইলে ইউএস-বাংলার দুর্ঘটনা এড়ানো যেত’

  • ডাকসু নির্বাচনে অংশ নেবে ছাত্রদল

  • ‘আগামী ১০ বছরে বাংলাদেশ আমেরিকার চেয়ে ভালো হবে’

  • ‘সাংবাদিক সমীর দেবনাথ আর নেই’

  • সৌদিতে পাসপোর্ট ইকামা কার্ড রাখতে পারবেন না নিয়োগকর্তা

  • ‘ঐক্যফ্রন্টের প্রতিক্রিয়া গণতন্ত্র সম্মত নয়’

  • গণভবনে বিদেশি কূটনীতিকদের আপ্যায়ন

  • ‘আওয়ামী লীগ ছেড়ে আমি আসিনি’

  • চীনের সঙ্গে যৌথ রেল প্রকল্প নিয়ে চুক্তি বাতিল করল মালয়েশিয়া